ব্লগে এডসেন্স পেতে কি কি লাগে ? (জেনেনিন এখানে)

ব্লগে এডসেন্স পেতে কি কি লাগে : আপনি যদি অনলাইনে ব্লগিং করে থাকেন। তাহলে আপনার মূল টার্গেট থাকবে, গুগল এডসেন্স থেকে আয় করা।

আমাদের মধ্যে এমন অনেক নতুন ব্লগার রয়েছে যারা ব্লক তৈরি করে, গুগল এডসেন্স থেকে কিভাবে ইনকাম করবে। এবং গুগল অ্যাডসেন্সের মাধ্যমে কিভাবে অনুমোদন নেবে। সে বিষয়ে সঠিক জ্ঞান রাখে না।

তাই আজ আমি এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আপনাদের সাথে শেয়ার করতে যাচ্ছি, ব্লগে এডসেন্স পেতে কি কি লাগে। আপনি যদি আমাদের টিপসগুলো অনুসরণ করেন। তাহলে সহজে ব্লগের জন্য আপনারা গুগল এডসেন্স অনুমোদন পেয়ে যাবেন।

আপনি যদি একজন ব্লগার হিসেবে ব্লগে কাজ করে থাকেন তাহলে অবশ্যই ইনকাম করার জন্য এডসেন্স অনুমোদন নিতে হবে।

আপনি যদি ব্লগে এডসেন্স অনুমোদন পেতে চান। এবং এডসেন্স পেতে গেলে কি কি লাগে। সে বিষয়ে পরিপূর্ণ ধারণা চান, তাহলে আমাদের আর্টিকেলটি শেষ পর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়ুন।

বর্তমান সময়ে অনলাইনে ইনকাম করার সবথেকে জনপ্রিয় মাধ্যম হচ্ছে, ব্লগ এবং ওয়েবসাইট। আপনি ব্লগিং করছেন সেক্ষেত্রে আপনার অবশ্যই গুগল এডসেন্স অত্যন্ত জরুরী।

আমাদের জানামতে বাংলাদেশ থেকে এমন অনেক ব্লগার রয়েছে। যারা প্রতিমাসে লক্ষ লক্ষ টাকা উপার্জন করে নিজের ঘরে বসেই। আপনিও যদি তাদের মতো ব্লগিং করে গুগল এডসেন্স থেকে উপার্জন করতে চান।

তাহলে আপনাকে অবশ্যই এডসেন্স অনুমোদন নিতে হবে, তার জন্য আপনাকে কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। সে বিষয়ে আমরা এখানে পরিষ্কার ধারণা দেওয়ার চেষ্টা করব।

বিশেষ করে, আমাদের দেওয়া টেস্টগুলো আপনি যদি সঠিকভাবে পালন করতে পারেন। আপনার ব্লগে তাহলে দ্রুত ভাবে গুগল এডসেন্স আর অনলাইনে ইনকাম করার শুরু করতে পারবেন।

আমাদের এই আর্টিকেলটি বেশি বড় করব না। আপনাকে অল্পতেই বুঝিয়ে দিব, কিভাবে গুগল এডসেন্স অনুমোদন পাওয়া যায়। এবং ব্লগে এডসেন্স পেতে কি কি লাগে।

তো চালুন আর সময় নষ্ট না করে, বিস্তারিত জেনে নেয়া যাক।

নিয়মিত পোস্ট পাবলিশ করা

আপনার ওয়েবসাইট বা ব্লগে অ্যাডসেন্সে অ্যাপ্রভাল করানোর আগে আপনার ওয়েবসাইটে নিয়মিত পোষ্ট পাবলিশ করতে হবে। আপনি যদি নিয়মিতভাবে আপনার ব্লগে, ভালো ভালো আর্টিকেল লিখে পাবলিশ করতে পারেন। তাহলে গুগল আপনার ওয়েবসাইটটি নজরে রাখবে।

বিশেষ করে, আপনি যদি নিয়মিতভাবে ব্লগে পোষ্ট পাবলিশ করেন। সেক্ষেত্রে আপনারা অনেক ভালো ভিজিটর পেয়ে যাবেন। আপনার ওয়েবসাইটে যদি ভাল ভিজিটর থাকে তবে গুগোল অ্যাডসেন্সে অ্যাপ্রভাল পেতে অনেক সহজ হবে এবং ইনকামের পরিমাণটা অনেক বেশি হবে।

আপনি যদি ব্লগে, দ্রুত গুগল এডসেন্স অনুমোদন পেতে চান। তাহলে প্রথমে আপনাকে এই টিপস অনুসরণ করতে হবে। তবে অনেকে মনে করতে পারে নিয়মিত ভাবে বলতে তো প্রতিদিন বোঝায়। এটা কিন্তু ভুল ধারণা।

আপনার ব্লগে নিয়মিত কাজ করা মানে প্রতিদিন নয়। আপনি চাইলে প্রতি মাসে আপনার ব্লগের জন্য পোস্ট নির্বাচন করে রাখবেন। মনে করুন আপনার ব্লগে, প্রতিমাসে ১০ টি বা ১৫ টি পোস্ট আপলোড করবেন।

সে ক্ষেত্রে আপনারা একদিন পরপর দুইদিন পরপর ব্লগে পোস্ট পাবলিশ করতে পারবেন। এভাবে কাজ করলে আপনাকে নিয়মিত মনে করবে গুগল।

মোটকথা আপনি যদি নিয়মিতভাবে ব্লগে কাজ করতে পারেন। তাহলে আপনার গুগল এডসেন্স পেতে অনেক সহজ হবে। আর ব্লগে এডসেন্স পেতে হলে, নিয়মিত আর্টিকেল পাবলিশ করতে হবে অবশ্যই।

ইউনিক পোস্ট করা

আপনার ব্লগে বা ওয়েবসাইটের যত সম্ভব প্লেজারিজম পোস্ট পাবলিশ করতে হবে। আমাদের মধ্যে এমন অনেক নতুন ব্লগার রয়েছে। যারা, বিভিন্ন মাধ্যমে, ব্লগ বা ওয়েবসাইটে বেশি বেশি আর্টিকেল লেখার কথা শুনে থাকে।

এবং তারা মনে করে ওয়েবসাইটে বেশি বেশি পরিমাণে আর্টিকেল লিখলেই দ্রুত গুগল এডসেন্স পাওয়া যাবে। কিন্তু না।

অনেকে আছে এক্ষেত্রে, ওয়েবসাইট থেকে আর্টিকেল কপি করে চুরি করে নিয়ে আসে। নিজের ওয়েবসাইটে ব্লগে নিজের নামে চালিয়ে দিয়ে থাকে এবং ওয়েবসাইটে দ্রুত আর্টিকেল বৃদ্ধি করে নেয়।

এরকমভাবে ওয়েবসাইট বা ব্লগে চুরি করা আর্টিকেল পাবলিশ করলে কোন ভাবে গুগল এডসেন্স অনুমোদন পাওয়া যাবে না। তাই আপনি যদি ব্লগে গুগল এডসেন্স পেতে কি কি লাগে সে বিষয়ে জানতে চান। তাহলে আপনাকে অবশ্যই ব্লগের জন্য ইউনিট পোস্ট লিখতে হবে।

ইউনিক, আপনার ওয়েবসাইটে যেসকল লেখা লিখবেন যে, কোন বিষয়ের উপর সেগুলো আপনার নিজের ভাষায় লিখতে হবে এটি হচ্ছে ইউনিক। এখন ভাবছেন যে, আপনি যে বিষয়ে আর্টিকেল লিখবেন সে বিষয়ে আপনি তো কিছুই জানেন না।

এতে করে কোন চিন্তার কারন নেই আপনি যে বিষয়ে আর্টিকেল পাবলিশ করবেন বা লিখবেন। তার আগে অবশ্যই সে আর্টিকেল বিষয়ে আপনাকে রিসার্চ করে নিতে হবে।

আপনি যত বেশি রিসার্চ করতে পারবেন, ঠিক তত বেশি নিজের মতো করে। ইউনিক ভাবে আর্টিকেল লিখতে পারবেন নিজের ব্লগে। তাছাড়া, গুগল অ্যাডসেন্সে অ্যাপ্রভাল পেতে হলে, আপনার ব্লগে ইউনিক পোস্ট লিখতে হবে অবশ্যই অবশ্যই।

ভালো নিশ সিলেক্ট করা

বর্তমান সময়ে google-adsense অনেক স্মার্ট হয়ে গেছে। অনেক ওয়েবসাইট দেখেছি যারা নিউজ নিয়ে কাজ করছে। চলমান কিছু ট্রেন্ডিং নিস নিয়ে কাজ করছেন কিন্তু তাদের ওয়েবসাইটে প্রবাল হচ্ছে না।

এর সঠিক কারণ আমি নিজেও জানিনা। তাই আমি পরামর্শ দিব নিউজ রিলেটেড নিস নিয়ে কাজ না করতে।

বর্তমান সময়ে গুগোল অ্যাডসেন্সে অ্যাপ্রভাল দ্রুত পাওয়া যায়। যে নিস গুলো ব্যবহার করে যেমন- টেকনোলজি, এসইও, শিক্ষা বিষয়ক আরো ইত্যাদি নিস নিয়ে যারা করাজ করে, তারা সকলেই ব্লগে অ্যাডসেন্সে অ্যাপ্রভাল পাচ্ছেন।

আপনি যদি ব্লগে এডসেন্স পেতে চান। তাহলে আপনাকে অবশ্যই ভালো নিস সিলেক্ট করতে হবে। যে বিষয়গুলো মানুষ বেশি অনলাইনে সার্চ করে।

আপনি যখন মানুষের পছন্দ মতো বিষয়গুলো নিয়ে ওয়েবসাইট বা ব্লগ তৈরী করতে পারবেন। তখনই আপনারা গুগল এডসেন্স থেকে অ্যাডসেন্সে অনুমোদন পেয়ে যাবেন।

প্রয়োজনীয় পেজ তৈরি করা

আপনি যদি গুগল এডসেন্স থেকে অনুমোদন পেতে চান। তাহলে আপনার ওয়েবসাইটটি সুন্দর করে সাজাতে হবে বিশেষ করে আপনার ওয়েবসাইটের যেকোনো একটি অংশে ওয়েবসাইটের একটি পেজ ক্রিয়েট করতে হবে যেমন- About, Contact, Privacy ইত্যাদি।

আপনি যদি গুগল এডসেন্স অনুমোদন পেতে চান। তাহলে অবশ্যই অবশ্যই আপনার ওয়েবসাইটে এ ধরনের পেজ গুলো তৈরি করতে হবে।

প্রফেশনাল ডিজাইন

গুগোল অ্যাডসেন্সে আবেদন করার আগে আপনার ওয়েবসাইট ভালো করে একটি থিম ইন্সটল করতে হবে। গুগল অ্যাডসেন্স পাওয়ার টা যখন আপনার ওয়েবসাইটের ডিজাইন এর উপর ডিপেন্ড করে থাকে। যদি আপনার ওয়েবসাইটের ডিজাইন এলোমেলো হয়। তাহলে আপনার ওয়েবসাইট রিজেক্ট হতে পারে অনুমোদন থেকে।

আপনার ওয়েবসাইটের ডিজাইন এবং প্রফেশনালভাবে করুন যাতে ভিজিটর বুঝতে পারে আপনার ওয়েবসাইটে, কোন প্রকার পোস্ট শেয়ার করা হয়।

কোথায় ক্লিক করলে কোন ধরনের পোস্ট চালু হবে। এডসেন্স ওয়েবসাইটের ডিজাইন ভিত্তি করে অ্যাডসেন্সে অ্যাপ্রভাল প্রদান করে। হিজিবিজি ডিজাইন না করে ক্লিন এবং প্রফেশনাল রাখুন এতে করে আপনার অ্যাডসেন্স পাওয়ার চান্স অনেক বৃদ্ধি পাবে।

শেষ কথাঃ

তো বন্ধুরা আপনি যদি ব্লগিং করেন এবং ব্লগে এডসেন্স পেতে চান। তাহলে উপরে দেয়া তথ্য গুলো আপনাকে অবশ্যই অনুসরণ করতে হবে। আমরা উপরের আলোচনায় আপনাকে জানিয়ে দিয়েছি ব্লগে এডসেন্স পেতে কি কি লাগে।

আমাদের আর্টিকেলটি শেষ পর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়ার পর আপনার কাছে, কেমন লাগলো অবশ্য একটি কমেন্টের আশা করছি। আর এ বিষয়ে আপনার ব্লগার বন্ধুদের জানাতে একটি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করে দিবেন।

বিশেষ করে, আমাদের ওয়েবসাইট থেকে ব্লগিং বিষয়ে এবং গুগল এডসেন্স সম্পর্কে আরো নতুন নতুন টিপস এন্ড ট্রিক্স পেতে নিয়মিত ভিজিট করুন ধন্যবাদ।

Leave a Comment