ইউটিউব থেকে ইনকাম করার সহজ পদ্ধতি [বিস্তারিত এখানে]

আমরা সকলেই ইউটিউব সম্পর্কে কম, বেশি কিছু জানি। ইউটিউব ভিডিও আপলোড করার জন্য একটি প্ল্যাটফর্ম। যেখানে হাজার হাজার মানুষ হাজার হাজার ভিডিও আপলোড করে থাকে টাকা ইনকাম করার জন্য। আপনিও যদি ভিডিও আপলোড করে টাকা আয় করতে চান তাহলে আমাদের এই নিবন্ধের পুরো আর্টিকেল পড়ুন।

আমরা অনেকেই শুনে পারি যে অনেক মানুষ ইউটিউব থেকে মাসে লক্ষ লক্ষ টাকা উপার্জন করছে। তারা কীভাবে ইউটিউব থেকে টাকা আয় করছে তা আমি আজ আপনাদের মাঝে তোলে ধরবো। আজ আমরা ইউটিউব থেকে কীভাবে টাকা আয় করবেন তা নিয়ে আলোচনা করব। এবং আপনি যদি ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করতে আগ্রহী হন তবে বিস্তারিত জানতে পুরো পোস্টটি পড়ুন।

ইউটিউব থেকে ইনকাম করার পদ্ধতি :

ইউটিউব থেকে অর্থ উপার্জনের একটি সহজ উপায় হল গুগল এডসেন্স ব্যবহার করে বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে টাকা আয়। এবং এই গুগল এডসেন্স কাজটি আপনার ইউটিউব ভিডিওতে বিজ্ঞাপন দেখা। ইউটিউবে ভিডিও দেখার সময় আমরা অবশ্যই একটি জিনিস লক্ষ্য করেছি যে কিছু ইউটিউব ভিডিও দেখার সময় বিভিন্ন বিজ্ঞাপন চালু হয়। আবার কিছু ভিডিওতে বিজ্ঞাপন নেই। কিন্তু কেন? যদি সত্য হয়, যে সকল চ্যানেল গুলো থেকে অর্থ উপার্জন করা হয় যা ভিডিওতে বিজ্ঞাপন দেখায়। এবং এই বিজ্ঞাপন গুলো রাখার কাজ গুগল অ্যাডসেন্স করেছে। গুগল এডসেন্স অনুমোদিত সকল ইউটিউব চ্যানেল গুলোতে বিজ্ঞাপন  দেখায় যা অনুমোদিত এবং শুধু মাত্র সেই ইউটিউব চ্যানেল গুলো অর্থ উপার্জন করতে পারে। এবং অনুমোদিত নয় এমন ইউটিউব চ্যানেল গুলো অর্থ উপার্জনের কোনও উপায় নেই।

গুগল এডসেন্স দিয়ে কীভাবে ইউটিউব থেকে ইনকাম করবেন?

গুগল এডসেন্স ব্যবহার করে কীভাবে এটি করবেন এখন আপনি ভাবতে পারেন। গুগল এডসেন্স এর সাহায্যে ইউটিউব থেকে অর্থ উপার্জনের জন্য প্রথমে আপনাকে একটি ইউটিউব চ্যানেল তৈরী করতে হবে। তারপর আপনাকে সেই চ্যানেলে আপনার পছন্দ মতো ভিডিও তৈরি করতে হবে এবং এটি ইউটিউবে আপলোড করতে হবে। এই ক্ষেত্রে মনে রাখার আরেকটি বিষয় হল আপনি যে ভিডিও গুলো তৈরি করবেন বা করবেন তা লোকদের কাছে আকর্ষণীয় হতে হবে। লোকেরা যেমন ভিডিও দেখে পছন্দ করে। মানুষ যত আপনার ভিডিও পছন্দ করবে তত আপনার ইনকাম হবে। যদি ভালো কোয়ালিটি মানের ভিডিও না আপলোড করতে পারেন তবে মানুষ পছন্দ করবে না আপনার কোন ইনকাম ও হবে না।

এক কথায়, আপনাকে এটি ভালো মানের ভিডিও তৈরি করতে হবে যে লোকেরা আরও ভিডিও দেখবে। এবং যত বেশি লোকেরা আপনার ভিডিও দেখবে, তত বেশি বিশ্বস্ত আপনার চ্যানেল গুগল এডসেন্স সাথে থাকবে। এবং আপনি যদি গুগল এডসেন্স এর জন্য আবেদন করেন তবে আপনি অনুমতি পাবেন ইউটিউবে এড দেখার জন্য ও ইনকাম করার জন্য।

আরও কিছু বিষয় মনে রাখা দরকার যেমন আপনি যদি সবেমাত্র ইউ টিউব চ্যানেলটি তৈরী করেন তবে ধৈর্য সহকারে আপনার চ্যানেলে ভিডিও সংখ্যা বাড়িয়ে নিন এবং আপনার ভিডিও গুলো আরও আকর্ষণীয় করে তোলার চেষ্টা করুন। এবং আপনার চ্যানেলের দর্শকদের বাড়াতে থাকুন। এবং যখন আপনি ভাল অবস্থানে আসতে পারবেন, তারপরে গুগল এডসেন্স এ আবেদন করুন। ভিডিও গুলো ভাল হলে আপনি অবশ্যই গুগল এডসেন্স এড পাবেন।

ইউটিউব ১০০০ ভিউয়ের জন্য কত টাকা দেয়?

আমাদের অনেকের মনেই প্রশ্ন রয়েছে যে ইউটিউবে প্রতি ১০০০ ভিউয়ের জন্য কত টাকা করে এডসেন্স এ জমা হয়? প্রকৃতপক্ষে, আমি আপনাকে এই সম্পর্কে আরও একটি জিনিস বলি, আপনি ইউটিউব প্রতিটি চ্যানেলে ১০০০ ভিউতে আলাদা আলাদা অর্থ প্রদান করেন। মনে করুন আপনার ইউটিউব ভিডিওটি গুগল এডসেন্স অনুমোদন পায়নি তাই আপনার ভিডিওতে কোনও বিজ্ঞাপন নেই তাই আপনি কোনও অর্থ পাবেন না। আপনি যদি গুগল এডসেন্স থেকে অনুমোদন পেয়ে থাকেন এবং আপনার চ্যানেলের ভিডিও গুলোতে গুগল বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করেন তবেই আপনি ইউটিউব থেকে টাকা উপার্জন করতে পারবেন।

আপনি কত টাকা পাবেন তা আপনার ভিডিওর মানের উপর নির্ভর করে। যদি আপনার ভিডিওটি ১৫ ​​মিনিটের বেশি হয় তবে আপনার ভিডিওতে আরও বেশি বিজ্ঞাপন দেখাবে এবং আপনি আরও টাকা উপার্জন করতে পারবেন। এবং ভিডিওটি যদি ছোট হয় তবে বিজ্ঞাপন গুলো কম দেখাবে তবে আপনি কম টাকা পাবেন।

আপনি এখন ভাবছেন যে আপনি আপনার চ্যানেলের ভিডিও আরও বড় করে তুলবেন এবং আরও বেশি টাকা উপার্জন করবেন। তবে আপনার ভিডিওটি আরও বড় করে মনে রাখার জন্য কিছু জিনিস রয়েছে, এটি মনে রাখবেন যাতে ভিডিওতে কেবল প্রয়োজনীয় জিনিসটিই উল্লেখ করা যায়। আপনি যদি অপ্রয়োজনীয় কিছু বলে ভিডিওটি আরও বড় করে তোলে তবে কিছু লোক আপনার ভিডিওর অর্ধেক দেখার পরে চলে যাবে। যদি তা হয় তবে আপনি ইচ্ছা করে টাকা উপার্জন করতে সক্ষম হবেন। সুতরাং আপনি যদি ভিডিওটি আরও বড় করতে চান তবে প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে ভিডিওকে আরও বড় করুন, অপ্রয়োজনীয় জিনিস দিয়ে ভিডিও বড় করবেন না। তাহলে ভিজিটর ভিডিও দেখবে না।

ইউটিউব থেকে টাকা উপার্জনের জন্য কিছু শর্ত বা নিয়ম অনুসরণ করতে হবে যা গুগল এডসেন্স এ আবেদন করার জন্য জানতে হবে :

  1. ১ বছরে, আপনার ইউটিউব চ্যানেলের সাবস্ক্রাইব কমপক্ষে ১ হাজার হতে হবে।
  2. ১ বছরে, আপনি যে ভিডিওটি তৈরি করেছেন তাতে অবশ্যই কমপক্ষে ৪,০০০ ঘন্টা ভিউ দেখাতে হবে।
  3. ভিডিও গুলো বড় করার চেষ্টা করুন তবে প্রয়োজনীয় তথ্যের সাথে এটি বড় করুন।
  4. গুগল এডসেন্স পুরো পুরি শর্তাবলী মেনে চলার চেষ্টা করুন।
  5. অন্যান্য ব্যক্তির ভিডিও কপি করা এবং আপলোড করা থেকে বিরত থাকুন। আপনি যদি শর্ত গুলো মানেন তবে দ্রুত এডসেন্স পাবেন টাকা ইনকাম করার জন্য।
  6. শেষ পর্যন্ত ধৈর্য হারাবেন না। ধৈর্য ধরুন এবং আপনি অবশ্যই একদিন সফল হবেন ১০০%।
    আপনার যদি এই পোস্ট থেকে যে কোনও বিষয় বুঝতে সমস্যা হয়, তবে নীচের মন্তব্যে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন।

পরিশেষেঃ

আমাদের এই এক্সপার্টজবস্.কম ওয়েবসাইটে এসে ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করার সহজ পদ্ধতি পড়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। আমাদের এই ওয়েবসাইটে পাবেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় এর সকল নোটিশ এবং বাংলাদেশে সকল চাকরির খবর সমূহ ও অনলাইন ইনকাম করার সহজ পদ্ধতি। আমাদের ওয়েবসাইটটি ভিজিট করুন নতুন আপডেট পেতে প্রতিদিন ধন্যবাদ।

Leave a Comment