নতুনদের জন্য অনলাইনে আয় করার সহজ উপায় [বিস্তারিত এখানে]

হ্যালো! কেমন আছেন সবাই। আশা করি ভালো আছেন। আজ আমি আপনাদের সাথে যে বিষয় নিয়ে আলোচনা করবো তা হলো নতুনদের জন্য অনলাইনে আয় করার সহজ উপায়।

আপনি যদি অনলাইন জগতে নতুন হয়ে থাকেন এবং অনলাইনে কাজ কারার জন্য সঠিক একটি ওয়েবসাইট খোজছেন তবে আর চিন্তা নেই। আপনি আমাদের এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে জানতে পারবেন টাকা ইনকাম করার সহজ উপায় বাংলাদেশে, অনলাইন ইনকাম বিকাশ পেমেন্ট

অনলাইন আয় কী?

আমাদের এখানে আপনি জানতে পারবেন অনলাইন আয় কি? এবং নতুন অবস্থায় অনলাইন উপার্জন করার উপায় কি কি রয়েছে।

অনলাইন ইনকাম বলতে অনেক প্লাটফর্ম কে বুঝায়। যে কাজ গুলো আপনি নতুন অবস্থায় করতে পারবেন সেই বিষয় নিয়ে আপনাকে জানাবো।

বর্তমানে লোকেরা বিভিন্ন উপায়ে অনলাইন উপার্জন করছেন। উক্ত কাজ গুলোর মধ্যে অনেক সহজ উপায় রয়েছে। আপনি যদি একজন নতুন অনলাইন কাজে অগ্রহী হন তবে আপনাকে আমরা ওয়েবসাইট তৈরি করে অনলাইনের ইনকাম করার পরামর্শ দিচ্ছি।

আপনি যদি ভালো কোন প্লাটফর্ম নিয়ে ওয়েবসাইটে কাজ করতে পারেন তবে আর চিন্তা নেই নিজের ঘরে বসে ইনকাম করতে পারবেন।

নতুনদের জন্য অনলাইন আয় করার সহজ উপায়
নতুনদের জন্য অনলাইন আয় করার সহজ উপায়

এখানে আপনি জানতে পারবেন জনপ্রিয় দুইটি প্লাটফর্ম এর কথা।

০১। ওয়ার্ডপ্রেস

০২। ব্লগার

বর্তমানে সব চেয়ে জনপ্রিয় প্লাটফর্ম এই দুটি। এই দুটি প্লাটফর্ম এর মধ্যে কিছু পার্থক্য আছে।

আপনি যদি ওয়েবসাইট নিয়ে কাজ করেন তাহলে আপনাকে এই দুটির পার্থক্য জানতে হবে।

ওয়ার্ডপ্রেস প্লাটফর্মে ওয়েবসাইট তৈরি করতে কি প্রয়োজন

আপনি যদি ওয়ার্ডপ্রেস নিয়ে ওয়েবসাইটে কাজ করেন তাহলে আপনাকে কিছু অর্থ ব্যয় করতে হবে। আপনি অল্প পরিমনের টাকা খরচ করে মনের মতো একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবেন।

এখানে কোন খাতে কিসের জন্য টাকা খরচ করতে হবে তা জানতে নিচের ধাপ গুলো দেখুন।

  • ওয়ার্ডপ্রেস তৈরি করার জন্য একটি ডোমেইন কিনতে হবে। আপনার প্রশ্ন হতে পারে ডুমেইন কি? ডোমেইন হলো একটি নাম। ডোমেইনের মাধ্যমে ওয়েবসাইটের পরিচয় দেওয়া হয়। যেমন আমাদের ওয়েবসাইট ডোমেইন হলো expartjobs.com. উক্ত ডোমেইন এর কিছু ভাগ রয়েছে। যেমন .com, .org, .net .xyz ইত্যাদি। বর্তমানে সবচেয়ে জনপ্রিয় হলো .com. আপনি যদি ডট কম ডোমেইন কিনেন তাহলে আপনার ৮০০/- থেকে ১০০০/- টাকা খরচ করতে হবে।
  • ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য একটি প্রিমিয়াম থিম ব্যবহার করতে হবে। থিম ব্যবহারের ফলে একটি ওয়েবসাইটের সুন্দর্য্য ফুটে উঠে। বর্তমানে অনেক ধরণের থিম বাজারে পাওয়া যায়। আপনাকে অবশ্য থিম কিনতে কিছু টাকা খরচ করতে হবে। যেমন ৫০০/- থেকে ১০০০/- এর মতো।
  • ওয়ার্ডপ্রেস এ ওয়েবসাইটে তৈরিন জন্য মোটামুটি মানের একটি হোস্টিং লাগাতে হবে। তো এখন বলতে পারেন হোস্টিং কি? হোস্টিং হলো ওয়েবসাইটের জায়গা বা মেমরি। আমরা ওয়েবসাইটে যে সকল তথ্য নিয়ে কাজ করি সেই সকল যেখানে সংরক্ষিত থাকে তাকে হোস্টিং বলে।হোস্টিং কিনতে আপনাকে কম করে হলেও ১০০০/- থেকে ১৫০০+ টাকা খরচ করতে হবে।

উপরিউক্ত জিনিস গুলো ছাড়া আর কিছু টাকা দিয়ে কিনতে হবে না। আপনি যদি উক্ত তথ্য গুলো অনুসরণ করে ওয়ার্ডপ্রেস এ কাজ করেন তাহলে ১০০% টাকা ইনকাম করতে পারেন।

ব্লগার এর মাধ্যমে ওয়েবসাইট তৈরি করতে কি প্রয়োজন

আপনি যদি ব্লগারের মাধ্যমে ওয়েবসাইট তৈরি করতে চান তাহলে কোন প্রকার খরচ ছাড়াই বিনামূল্যে করতে পারবেন। ব্লগার ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্যও ওয়ার্ডপ্রেস এর মতো জিনিস গুলো লাগবে কিন্তু মজার বিষয় হলো এখানে কোন প্রকার টাকা খরচ করতে হবে না।

  • ব্লগারে সাইট তৈরি করার জন্য একটি ডোমেইন লাগবে তবে এটি কিনতে হবে না কারন ডোমেইন একদম ফ্রি। আপনার প্রশ্ন হতে পারে ডুমেইন ফ্রি কিভাবে নিবেন? ফ্রি ডোমেইন হলো একটি নাম। ডোমেইনের মাধ্যমে ওয়েবসাইটের পরিচয় দেওয়া হয়। যেমন ব্লগার ওয়েবসাইট ডোমেইন হলো blogspot.com. উক্ত ডোমেইন এর  নাম হতে পারে যেমন edujscircular.blogspot.com
  • ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য একটি প্রিমিয়াম থিম ব্যবহার করতে পারেন। এছাড়া আপনি ফ্রি থিম ব্যবহার করতে পারবেন।
  • ব্লগার এ ওয়েবসাইটে তৈরির জন্য মোটামুটি মানের একটি হোস্টিং ফ্রি। তো এখন বলতে পারেন হোস্টিং কি? হোস্টিং হলো ওয়েবসাইটের জায়গা বা মেমরি। আমরা ওয়েবসাইটে যে সকল তথ্য নিয়ে কাজ করি সেই সকল যেখানে সংরক্ষিত থাকে তাকে হোস্টিং বলে।

আপনি জানতে পারলেন ওয়েবসাইট কোথায় বানাতে হয় এবং কি কি প্লাটফর্ম এ ওয়েবসাইট বানাতে হয়। এছাড়া সাইট তৈরি করতে কত খরচ হবে তার বিস্তারিত তথ্যাদি।

ওয়েবসাইট তৈরি করে কি কাজ করবেন?

আপনি যদি একটি ওয়েবসাইট তৈরি করেন তাহলে এখানে কি কাজ করবেন।

আমরা আপনাকে দেখাবো ওয়েবসািটে কি কাজ করবেন। আমরা জানি বর্তমানে ওয়েবসাইটে অনেক ধরনের কাজ করে অনলইন ইনকাম করা যায়।

যেমন : বাংলা ওয়েবসাইট বা ইংরেজি ওয়েবসাইট নিয়ে কাজ করতে পারবেন। এখন বর্তমানে অনেকেই বাংলা ওয়েবসাইট নিয়ে টাকা ইনকাম করছে।

আপনি যদি বাংলা ওয়েবসাইট নিয়ে কাজ করেন তাহলে ভালো নিশ/টপিক নিয়ে কাজ করতে হবে।

যেমন: অনলাইন ট্যাকনোলজি, শিক্ষা বিষয়ক, চাকরির খবর, স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা টপিক নিয়ে কাজ করতে পারেন।

ওয়েবসাইটে কাজ করে আয়ের মাধ্যম

বর্তমানে সবচেয়ে জনপ্রিয় আয় করার মাধ্যম এড নেটওয়ার্ক। ওয়েবসাইটে কাজ করে ইনকাম করার জন্য গুগল এডসেন্স এ আবেদন করে এড এর জন্য অনুমোদন নিতে হবে।

গুগল এডসেন্স যখন আপনার ওয়েবসাইট এড এর জন্য অনুমতি দেবে তখন আপনার সাইটে অনলাইন উপার্জন শুরু হবে।

ইউটিউব থেকে অনলাইনে আয়

বর্তমানে অনলাইনে আয় করার সহজ উপায় ইউটিউব। কারন বিশ্বের সকল প্রকার মানুষ কোন তথ্য বা বিনোদন দেখতে ইউটিউব ব্যবহার করে।

আপনি যদি ইউটিউব চ্যানেল নিয়ে কাজ করেন তবে টাকা উপার্জন করতে পারবেন। ইউটিউব নিয়ে বর্তমানে অনেক লোক বিভিন্ন ধরণের ভিডিও তৈরি করে আপলোড করছে আর তার বিনিময়ে টাকা ইনকাম করছে।

আপনি যদি ইউটিউব থেকে টাকা আয় করতে চান তাহলে আপনাকে একটি চ্যানেল তৈরি করতে হবে।

ফেসবুক থেকে আয় 

বর্তমানে সব চেয়ে জনপ্রিয় টাকা ইনকাম মাধ্যম হলো ফেসবুক। আপনি যদি ফেসবুক থেকে ইনকাম করতে চান তাহলে অনেক উপায় পাবেন যেমন: ফেসবুক একাউন্ট বিক্রি করে, ফেসবুক গ্রুপ খুলে, ফেসবুক পেজের মাধ্যমে।

ফেসবুক একাউন্ট বিক্রি করে আয় করার উপায়। আমরা জানি বর্তমানে সকলেই ফেসবুক ব্যবহার করে। থাকে ফেসবুক শুধু যোগাযোগ মাধ্যমই নয়। বর্তমানে ফেসবুক বিক্রি করে আয় করা যায়।

মনে করুন আপনার ১০-১৫ টাকা ফেসবুক ফেক একাউন্ট থাকে। সেই একাউন্ট গুলো আপনি টাকার বিনিময়ে বিক্রি করতে পারবেন খুব সহজেই অনলাইনের মাধ্যমে।

এছাড়া আপনি যদি ফেসবুক পেজ খুলে কাজ করেন তাহলেও অনলাইনে টাকা ইনকাম করতে পারবনে। আপনার প্রশ্ন হতে পারে ফেসবুক পেজে কি করে আয় করব?

মনে করুন আপনি একটি পেজ তৈরি করলেন সেই পেজে যখন হাজার হাজার ফলোয়ার হবে তখন অনেক ওয়েবসাইটের মালিক আপনার পেজের মাধ্যমে বুস্ট করতে চাইবে। যখন তারা বুস্ট করবে তাদের টাকা ইনকাম হবে। তার বিনিময়ে আপনিও টাকা পাবেন ফেসবুক পেজে লিংক দেওয়ার জন্য।

এখাবে যদি কিছু ভালো ওয়েবসাইট পেয়ে যান তাহলে আপনি ফেসবুক পেজের মাধ্যমে টাকা আয় করতে পারবনে। আপনি যদি এই সহজ প্রক্রিয়ায় কাজ করতে চান তাহলে আজই থেকেই শুরু করতে পারেন।  অনলাইন ইনকাম করার সহজ উপায় গুলো অনুসরণ করে কাজ শুরু করুন।

আমরা আপনাকে ধাপে ধাপে দেখাবো অনলাইনে আয়ের জনপ্রিয় সব উপায়। তাহলে নিচের অংশ গুলো দেখতে থাকুন।

ছাত্রদের জন্য অনলাইনে আয়

বর্তমানে ছাত্র ছাত্রীরা অনলাইনের মাধ্যেমে ঘরে বসে মোবাইলে আয় করতে পারবেন। আপনারা মোবাইলে টাকা আয় করার apps ইনস্টল করে কাজ করতে পারবেন।

ভিডিও দেখে অনলাইন ইনকাম করতে পারবেন। ভিডিও দেখার জন্য কি কি সাইটে কাজ করতে পারবেন তার জন্য নিয়ে অংশ দেখুন।

  • AppNana
  • CreationsRewards
  • SendEarnings
  • QuikRewards
  • Slidejoy
  • Viggle
  • Swagbucks

উপরোক্ত অ্যাপস গুলোর মাধ্যমে আপনি ভিডিও দেখে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। আপনি যদি ভিডিও দেখে টাকা আয় করার এপ গুলো ডাউনলোড করেন তাহলে অনলাইন থেকে প্রতিদিন ইনকাম করতে পারবেন।

মাইক্রো জব করে আয়

আপনি যদি নিজের ঘরে বসে অনলাইনের মাইক্রো জব গুলো করেন তাহলে অনলাইনের মাধ্যমে টাকা ইনকাম করতে পাবেন। মাইক্রো জব এক কাজ গুলো হলো আপনি অনলাইনে অনেক ছোট ছোট কাজ গুলো দেখবেন সেই কাজ গুলো করাকে মাইক্রোস জব বলে।

এই কাজ গুলো অনেক ছোট হয়ে থাকে। এখানে টাকার বিনিময়ে কাজ করিয়ে নেওয়া হয়। আপনি যদি এই ছোট খাটো কাজ করে করে আয় করতে চান তাহলে নিয়মিত করতে পারেন। মাইক্রো জব এ কাজ গুলো দৈনি ক ১-২ ঘন্ট করেই তার বিনিময়ে ৫০০-৬০০ টাকা আয় করতে পারবেন।

শেষ কথাঃ

আপনি যদি উপরিউক্ত কাজ গুলো অনুসরণ করে কাজে লাগাতে পারেন তবে অনলাইন থেকে টাকা আয় করতে পারবেন। আমরা উক্ত কিছু টপিক দিয়েছি এ গুলো প্রত্যেকটি জনপ্রিয় মাধ্যম।

আপনাকে বেছে নিতে হবে যে কোন মাধ্যমে আপনি কাজ করতে পারবেন। যে কোন একটি টপিক অনুসরণ করে কাজ শুরু করে দিন তাহলে ভালো পরিমাণের টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

আমাদরে এই ওয়েবসাইটের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ। এই পোস্ট গুলো পড়ার পরে আপনার ভালো লাগলে শেয়ার করতে ভুলবেন না।

1 thought on “নতুনদের জন্য অনলাইনে আয় করার সহজ উপায় [বিস্তারিত এখানে]”

  1. আপনার সাইটের পোস্টগুলো খুব যুগ উপযোগী। আশা করি আরও ভাল কিছু পাব আপনার থেকে। আপনার অনুপ্রেরণায় আমি একটি সাইট তৈরি করেছি আশা করি সকলের উপকারে আসবে।

    Reply

Leave a Comment