লাভজনক পাইকারি ব্যবসার আইডিয়া ২০২২

পাইকারি ব্যবসার আইডিয়া : বর্তমানে বিশ্বে অনেক ধরনের ব্যবসা আছে যা আমরা জানি না এর মধ্যে অন্যতম একটি সহজ ও লাভজনক ব্যবসা হচ্ছে পাইকারি ব্যবসা।

বর্তমান সময়ে পাইকারি ব্যবসা করে লোকেরা লক্ষ লক্ষ টাকা আয় করছে। পাইকারি ব্যবসার চাহিদা দিন দিন বেড়েই যাচ্ছে এটি গ্রাম থেকে শুরু করে শহর পর্যন্ত পাইকারি ব্যবসার চাহিদা বেড়েই চলছে।

আপনি উৎপাদন থেকে কিনে সেগুলো খুচরা ব্যবসায়ীদের কাছে বিক্রি করাকে পাইকারি ব্যবসা করলে আজকে আমরা আপনাদের পাইকারি ব্যবসা লাভজনক কিছু আইডিয়া বলব সেই বিষয়গুলো আপনি যদি অনুসরণ করতে পারেন তবে আপনিও পাইকারি ব্যবসা করে প্রতিমাসে ভালো পরিমাণ টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

লাভজনক পাইকারি ব্যবসার আইডিয়া ২০২২
লাভজনক পাইকারি ব্যবসার আইডিয়া ২০২২

আপনি যদি পাইকারি ব্যবসার আইডিয়া জানতে চান তবে আমাদের দেয়া শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়ুন।

আপনাকে জানিয়েছি পাইকারি ব্যবসা হচ্ছে আপনি নিজের মূলধন খাটিয়ে অনেক ধরনের চাহিদাসম্পন্ন বা প্রডাক্ট প্রায় করে বাজারে খুচরা ব্যবসায়ীদের কাছে বিক্রি করাকে বলা হয় পাইকারি ব্যবসা।

আপনাকে কিছু পাইকারি ব্যবসার সঠিক আইডিয়া প্রদান করব সেগুলো আপনি যদি কাজে লাগাতে পারেন তবে আপনিও প্রতি মাসে লক্ষ লক্ষ টাকা ইনকাম করতে পারবেন খুব সহজেই তো চলুন দেখে নেয়া যাক কি ধরনের পাইকারি ব্যবসা করে আপনি বেশি টাকা লাভবান হতে পারবেন।

আরো দেখুনঃ

জুতার পাইকারি ব্যবসা

আমরা প্রথমে আপনাকে যে একটি লাভজনক পাইকারি ব্যবসার কথা বলব সেটি হচ্ছে জুতার ব্যবসা। বর্তমান সময়ে জুতার কেমন চাহিদা রয়েছে মানুষের সে বিষয়টা হয়তো আমাকে পরিষ্কার করে বলতে হবে না।

কারণ বর্তমানে এমন কোন লোক নেই যারা জুতা ব্যবহার করেনা সকলেরই প্রয়োজন চলার পথে জুতা। আমরা জানি ছোট থেকে বড় সকলে জুতা ব্যবহার করে থাকে তো আপনি চাইলে আপনার এলাকায় জুতার পাইকারি ব্যবসা শুরু করতে পারেন এতে অনেক পরিমাণে টাকা লাভ হওয়ার সম্ভাবনা থাকে তার চাহিদা সব সময় থাকবে মানুষ যত বাড়বে আপনার জুতার চাহিদা তত বেশি বাড়বে।

আপনি যদি পাইকারি জুতার ব্যবসা শুরু করেন তবে এখানে লস ক্ষতি হওয়ার কোনো সম্ভাবনা থাকবে না আপনি ছোট বড় সকল সাইজের জুতা পাইকারি ব্যবসা শুরু করতে পারেন এরকম হয়ে থাকে ব্র্যান্ড এর জুতা আর নন ব্র্যান্ডের জুতা।

আমরা জানি বর্তমান সময়ে ব্র্যান্ডের জুতা গুলো পাওয়া যায় সেগুলোর দাম বেশি আর যেগুলো নন ব্যান্ড এর জুতা সেগুলো একটু দাম কম। আপনার অর্থ অনুযায়ী আপনি জুতা ক্রয় করে পাইকারি ব্যবসাটি শুরু করে দিতে পারেন। আপনি যদি জুতার ব্যবসা আগ্রহী থাকেন তবে আপনি মাত্র এক থেকে দেড় লক্ষ টাকা ব্যয় করে এই ব্যবসাটি শুরু করে দিতে পারবেন।

টি-শার্টের পাইকারি ব্যবসা

বর্তমান সময়ে আরও একটি জনপ্রিয় ব্যবসার নাম হচ্ছে টি-শার্টের ব্যবসা। আমাদের বাংলাদেশ টি-শার্টের অনেক বেশি চাহিদা রয়েছে, যেমন বাংলাদেশ অনেক গার্মেন্টস ফ্যাক্টরিতে টি শার্ট তৈরি করা হয় সে সকল টি-শার্ট বাংলাদেশের তুলনায় অনেক বেশি রপ্তানি করা হয় আপনি অল্প পুজিতে টি-শার্ট ব্যবসা শুরু করতে পারবেন সঠিকভাবে পরিচালনা করার জন্য আপনাকে ভালো শ্রম দিতে হবে।

আপনি যদি সঠিকভাবে কাজে লাগাতে পারেন তবে আপনি যদি আমাকে এই ব্যবসা থেকে কম করে হলেও 1 লক্ষ টাকা থেকে শুরু করে আরো বেশি টাকা আয় করতে পারবেন খুব সহজে।

 

কাপড়ের পাইকারি ব্যবসা

আমরা আপনাকে আরও একটি নিত্যদিনের অত্যন্ত প্রয়োজনীয় একটি ব্যবসার সাথে পরিচয় করিয়ে দিব সেটি হচ্ছে কাপড়ের পাইকারী ব্যবসা আইডিয়া।

আপনি যদি চান তবে কাপড়ের পাইকারি ব্যবসা শুরু করে দিতে পারেন কাপড়ের সারাবছর চাহিদা থাকায় অনেক টাকা লাভ করা সম্ভব আপনি বিভিন্ন রকমের কাপড় উৎপাদন করে বাজারের বিভিন্ন মার্কেটগুলোতে বিক্রি করতে পারবেন।

বর্তমানে কাপড় কেনার জন্য অনেক ধরনের গার্মেন্টস রয়েছে আর শাড়ি পাইকারি ব্যবসা করতে চাইলে আপনি সরাসরি তাঁতিদের কাছে থেকে কিনে নেবেন এতে আপনি অনেক কম দামে শাড়ি কিনতে পারবেন একটা কথা মনে রাখবেন আপনি যদি পণ্য কেনার সময় লাভ করতে না পারেন কিন্তু ব্যবসা লস সম্ভাবনা থাকে তবে এখানে আপনাকে এখানে হাল ছেড়ে দিলে চলবে না তারপরে পাইকারি ব্যবসা করার জন্য প্রথমে আপনাকে বেশি টাকা প্রজি খাটাতে হবে।

আপনি যদি এই ব্যবসাটি খুচরা ব্যবসায়ীদের কাছে জনপ্রিয় করতে পারেন তবে আপনিও এ ব্যবসাতে সফল হতে পারবেন। আপনার যদি এই পাইকারি ব্যবসা টি ভালো লেগে থাকে তবে আজ এই ব্যবসাটি শুরু করে দিতে পারেন।

চালের পাইকারি ব্যবসা

আমরা জানি চাল বাংলাদেশ প্রতিদিনের চাহিদা একটি পণ্য। মুক্তা চাল ব্যবসায়ী অনেক লাভজনক হওয়া সম্ভব আপনি তাহলে এই ব্যবসাটা শুরু করতে পারেন চালের পাইকারি ব্যবসা করার জন্য আপনাকে একটি বড় গুদাম রেডি রাখতে হবে আপনি শুরুতে 300 থেকে 500 বস্তা চাল দিয়ে ব্যবসাটি শুরু করবেন।

আপনি প্রতি বস্তা থেকে খুচরা বিক্রি করে প্রায় 100 থেকে 200 টাকা লাভ করতে পারবেন। আর আপনি যদি যারা খুচরা বিক্রি করে তাদের কাছে বিক্রি করেন তবে প্রতি বস্তা 50 থেকে 100 টাকা লাভ করতে পারবেন। আপনি যদি এই ব্যবসাটি করতে আগ্রহী থাকেন তবে আজ থেকেই শুরু করে দিতে পারেন।

স্টেশনারি পণ্যের পাইকারি ব্যবসা

বর্তমানে নিত্যদিনের জনপ্রিয় একটি ব্যবসা হচ্ছে স্টেশনারি পণ্যের পাইকারি ব্যবসা। আপনি যদি স্টেশনারি পণ্যের পাইকারি ব্যবসা শুরু করতে চান তবে আপনাকে অবশ্যই খাতা-কলম জ্যামিতি বক্স রাবার পেন্সিল রং পেন্সিল ক্যালকুলেটর এর মতো আরো অনেক ধরনের পণ্য রয়েছে যেগুলো দয়া করে আপনি স্টেশনারি পণ্যের পাইকারি ব্যবসাটি শুরু করে দিতে পারেন।

 

আপনার যদি স্টেশনারি পাইকারি ব্যবসা শুরু করেন তবে এখানে অনেক লাভ করতে পারবেন এই স্টেশনের পণ্যগুলো পাইকারি দামে কিনতে চাইলে আপনাকে অবশ্যই ঢাকা চকবাজার নীলক্ষেত চট্টগ্রাম মার্কেটপ্লেসগুলোতে পেয়ে যাবেন আপনি এখান থেকে কিনে নিয়ে আসবেন এই স্টেশনের পণ্যগুলো পাইকারি ব্যবসা করার জন্য আপনাকে শুরুতে টাকার দরকার হবে তিন থেকে চার লক্ষ টাকা।

আপনি সেই সকল এলাকা থেকে স্টেশনারি পণ্য কিনে নিয়েছে আপনার নিজের এলাকায় বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসগুলোতে পাইকারি বিক্রি করে অনেক টাকা লাভ করতে পারবেন।

ব্যাগের পাইকারি ব্যবসা

বর্তমানে আরও একটি জনপ্রিয় ব্যবসা হচ্ছে ব্যাগের পাইকারি ব্যবসা। এই ব্যবসার অনেক চাহিদা রয়েছে। বেগের মধ্যে অনেক রকমের ব্যাগ পাওয়া যায় যেমন শপিং ব্যাগ মানি ব্যাগ স্কুল ব্যাগ আরো অনেক ধরনের ব্যাক।

আমরা জানি বর্তমান সময়ে চামড়ার ব্যাগে অনেক চাহিদা রয়েছে চামড়ার ব্যাগে যেমন চাহিদা রয়েছে তেমনি একটু দাম বেশি দাম বেশি থাকায় প্রত্যেকে ভাল টাকা লাভ করতে পারবেন আপনি ব্যাগের পাইকারি ব্যবসা শুরু করার জন্য কমপক্ষে এক থেকে দেড় লক্ষ টাকা খাটাতে হবে।

শেষ কথাঃ

আমাদের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে জানতে পারলেন লাভজনক ব্যবসার আইডিয়া। আমরা আপনাকে যে সকল পাইকারি ব্যবসার আইডিয়া দেখেছি সেগুলো যদি আপনি আপনার পছন্দমতো বেছে নিয়ে কাজ শুরু করতে পারেন তবে আপনিও প্রতিমাসে বহুৎ টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

লাভজনক পাইকারি ব্যবসার আইডিয়া ২০২২ লাভজনক পাইকারি ব্যবসার আইডিয়া ২০২২ লাভজনক পাইকারি ব্যবসার আইডিয়া ২০২২ লাভজনক পাইকারি ব্যবসার আইডিয়া ২০২২ লাভজনক পাইকারি ব্যবসার আইডিয়া ২০২২ লাভজনক পাইকারি ব্যবসার আইডিয়া ২০২২

আমাদের ওয়েবসাইটের আর্টিকেলটি যদি আপনার কাছে ভাল লেগে থাকে তবে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না। আমাদের সাথে থাকার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

Leave a Comment